deshbangla71news.com
আন্তর্জাতিক

কিম জং উন এর বিচিত্র স্বভাব


কিম জং উন উত্তর কোরিয়ার একজন রাজনীতিবিদ এবং তাদের দেশের খ্যাতি লাভ করা একজন নেতা ও বিচিত্র স্বভাবের মানুষ। ২০১১ সাল থেকে তিনি উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ ক্ষমতাসীন একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে বিশ্বের বুকে পরিচিত হতে শুরু করেন।

কিম জং উন হলো উত্তর কোরিয়ার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা কিম জং ইল এর সন্তান। তিনি ১৯৮৪ সালের ৮ জানুয়ারি উত্তর কোরিয়াতে জন্মগ্রহণ করেন। তার একটি সন্তান, কিম জু এই। কিম জং উন উত্তর কোরিয়ার ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক। এছাড়াও তিনি কেন্দ্রীয় সামরিক সংস্থার সভাপতি, জাতীয় প্রতিরক্ষা সংস্থার সভাপতি, কোরিয়ান পিপলস আর্মির সর্বোচ্চ অধিনায়ক।

গণমাধ্যমে সর্বপ্রথম কিম জং উন নামক বিচিত্র স্বভাবের মানুষটির নাম খোলাখুলিভাবে এসেছিলো ২০১০ সালের সেপ্টেম্বরে। ক্ষমতায় আসার ১৪ মাসের ভিতরেই দেশের শীর্ষ ৪ জন উপদেষ্টার যে হাল করেছেন তিনি তা দেখে দেশবাসী বুঝে গিয়েছিলেন যে, তিনি উত্তর কোরিয়াতে আলাদা কিছু ঘটাতে যাচ্ছেন। কিম এর চুল এ বিচিত্র ছাট, ভিন্ন রকমের পোশাক পরিধান এবং মারাত্মক সাহসিকতার পরিচয় দেন তার কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে। দেশের শীর্ষ স্থানীয় উপদেষ্টা, নেতাদেরকে মৃত্যুদন্ড বা কারাদণ্ড দিতে তিনি একটুও চিন্তা করেন না। এতে করে তার সাহসিকতার বারবার পরিচয় পাওয়া যায়।

এছাড়া তার দেশের আইন-কানুন ও অন্য সকল দেশের থেকে আলাদা। তার দেশের সকলের চুলের কাট একই হতে হবে। সকল নাগরিক একইরকম পোষাক পরিধন করবে । নাগরিকদের জন্য আলাদাভাবে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। তবে যেই নাগরিক তার দেশের এই নিয়ম কানুনগুলো মানবেনা তাকে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হবে। এই জন্যই তাকে আলাদা মানসিকতার মানুষ বলা হয়।
তাই কিম জং উন এর বিলাসবহুল জীবন অন্য সকল নেতাদের থেকে আলাদা।


Related posts

আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস, পদত্যাগ করলেন কর্ণাটকের মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘স্বৈরাচারের পতন হোক’ স্লোগানে উত্তপ্ত থাইল্যান্ড

deshbangla71news.com

একসঙ্গে ১৯ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করল ভারত

নিজস্ব প্রতিবেদক