1. faolimited01753@gmail.com : Fao Limited : Fao Limited
  2. admin@deshbangla71news.com : deshbangla71news.com :
  3. artaimoon@gmail.com : AR Taimoon : AR Taimoon
  4. kazimdsazzadhasan@gmail.com : Kazi MD Sazzad Hasan : Kazi MD Sazzad Hasan
  5. partspermillion01@gmail.com : MD Rakib : MD Rakib
চসিক প্রশাসকের বিদায় বেলাতে সুজন পুত্রের আবেগঘন স্ট্যাটাস - deshbangla71news.com
রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৮:৫২ অপরাহ্ন

চসিক প্রশাসকের বিদায় বেলাতে সুজন পুত্রের আবেগঘন স্ট্যাটাস

অর্ণব দাশ
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

 

গত বছরের আগস্ট মাসের ৪ তারিখ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজন কে ৬ মাসের জন্য প্রশাসকের দায়িত্ব প্রধান করেন।সম্প্রতি শেষ হচ্ছে তাঁর এই দায়িত্ব।এ নিয়ে প্রশাসক পুত্র সুজন তার নিজের ফেইসবুক আইডি থেকে এক আবেগপ্রবণ স্ট্যাটাস দেয়।এতে তিনি বলেন,”অনেকটা অপ্রস্তুত ভাবে দায়িত্বটা কাঁধে পড়েছিলো। আজ অনেকটা অপ্রস্তুতভাবেই হয়তো বিদায়ও হয়ে গেলো। আগস্টের ৪,২০২০ থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত স্বপ্নের মত কিছু সময় অতিবাহিত হয়েছে। জীবনে আমার ইচ্ছা ছিল একদিন হলেও আব্বাকে প্রশাসনিক কোন দায়িত্বে দেখবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ আমার আব্বাকে সম্মান এনে দেওয়ার জন্য। সেই সাথে ধন্যবাদ জানাই এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলাম মহোদয়কে।

 

ছয় মাস খুব আহামরি সময় না। এই সময়ে রাতারাতি সব পাল্টে দেওয়াও সম্ভব না। খোরশেদ আলম সুজন সফল নাকি না সেটা বিচার করার দায়িত্ব জনগণের। আমার দিক থেকে শুধু এটাই বলবো তাঁর চেষ্টার কমতি ছিল না। তিনি এই ছয় মাস মানুষের কাজে নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছেন। এই ছয় মাস আমরা আমাদের বাবাকে এক অন্য রূপে দেখেছি। উনি কি কাজ করেছেন না করেছেন তা সম্পর্কে ও গুণগান আমি করবো না।

শুধু চট্টগ্রাম শহরের জনগণই না সমগ্র বাংলাদেশের মানুষ সাক্ষী উনার কাজের। আজ বিদায়বেলায় প্রাপ্তি এটুকুই যে আমাদেরকে কেউ চোরের ছেলে ডাকছে না, আমাদের প্রতি কেউ বিষোদগার করছে না। আমি আগেও বলেছি, এখন আবারো বলবো, দেয়ার ইজ নো ওয়ান মোর ক্যাপএবল অফ বিয়িং রিপ্রেজেনটেটিভ অফ দা পিপল দ্যান মাই ফাদার ইন দিস সিটি। এণ্ড ডিউরিং দিস সিক্স মান্থ হি হ্যাস প্রুভেন ইট ফেয়ার এণ্ড স্কোয়ার। আমি গর্বিত এমন বাবার সন্তান হতে পেরে।

 

 

প্রতিদিন তাঁর এডমিনিস্ট্রেশন স্কিলস দেখে কিছু না কিছু শিখেছি। উনি ইস্পাত দৃঢ় মানসিকতায় শহরটাকে সামলেছেন। কবি নজরুল বলেছেন, “যে-পথ আমার সত্যের বিরোধী, সে পথ আর কোনো পথই আমার বিপথ নয়। রাজভয়-লোকভয় কোনো ভয়ই আমার বিপথে নিয়ে যাবে না। আমি যদি সত্যি করে আমার সত্যকে চিনে থাকি, আমার অন্তরে মিথ্যার ভয় না থাকে, তাহলে বাইরের কোনো ভয়ই আমার কিছু করতে পারবে না।” বিদ্রোহী কবির এই কথাগুলো সবসময় আমি নিজের মধ্যে ধারণের চেষ্টা করি। এই কথাগুলোর অক্ষরে অক্ষরে প্রতিফলন হতে দেখলাম এই ছয়মাসে আমার আব্বার কর্মকাণ্ডে। তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন, প্রমাণ করেছেন ইচ্ছা থাকলে সময়টা বড় ব্যপার না। টু মেক এ ডিফেরেন্স অনলি ইউর উইল টু ওয়ার্ক ইজ মোর দ্যান ইনাফ। আমি আমার সেই আবেগঘন একটা স্ট্যাটাসে বলেছিলাম যারা উনাকে ক্যালকুলেশনের বাইরে ফেলে দিতে চাচ্ছেন গুডলাক টু দেম। আবারও তাদের বলছি ক্যালকুলেশন থেকে ফেলে দিতে পারেন তা আপনাদের ইচ্ছা কিন্তু চট্টগ্রামের ৬০ লাখ সাধারণ মানুষের মন থেকে যদি উনাকে ভুলাতে পারেন, গুডলাক!

এই সম্মান,ভালোবাসার ঋণ শোধ করবার ভাষা আমার জানা নেই। সকলকে ধন্যবাদ। আমাদের পরিবারের জন্য দোয়া করবেন। নতুন এডমিনিস্ট্রেশনের আণ্ডারে বিত্তের শহর চট্টগ্রাম হয়ে উঠুক চিত্তের শহর যে বিপ্লবের সূচনা করে গেছেন মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন। এই হলো প্রত্যাশা।”

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত