deshbangla71news.com
  • Home
  • জাতীয়
  • “খোকা” নামের সেই ছেলেটির ১০১ তম জন্মবার্ষিকী আজ
জাতীয়

“খোকা” নামের সেই ছেলেটির ১০১ তম জন্মবার্ষিকী আজ


বঙ্গবন্ধু; এই একটা শব্দে নিহিত কোটি কোটি মানুষের ভালোবাসা, কোটি কোটি মানুষের স্বাধীনতা, কোটি কোটি মানুষের মুখনিঃসৃত প্রিয় বাংলা ভাষা। কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ের স্পন্দন যিনি, সবুজ-শ্যামল সোনার বাংলা গড়ার মহান কারিগরও তিনি। বাংলার মানুষ কি করে শোধ করবে তাঁর এই ঋণ? আজ যে তাঁর ১০১ তম শুভ জন্মদিন!

১৯২০ সালের ১৭ ই মার্চ গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে বাবা শেখ লুৎফর রহমান ও মা সায়েরা খাতুনের কোল আলোকিত করে জন্মগ্রহণ করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

কে জানত, খোকা নামের এই ছেলেটিই একিদন হয়ে উঠবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহানায়ক, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি! কে জানত, খোকা নামের এই ছেলেটি একদিন হয়ে উঠবে একটি শব্দে লুকিয়ে থাকা শত শত গুণের বঙ্গবন্ধু!

বঙ্গবন্ধু শুধু একটা শব্দ নয়! বঙ্গবন্ধু মানে একটা দেশ, বঙ্গবন্ধু মানে একটা লাল-সবুজের পতাকা, বঙ্গবন্ধু মানে মুখনিঃসৃত প্রিয় মাতৃভাষা বাংলা। বঙ্গবন্ধু মানে অনুপ্রেরণা, বঙ্গবন্ধু মানে সকল অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর প্রধান হাতিয়ার। যার জন্ম না হলে হয়তো আজও বর্বর পাকিস্তানিদের গোলাম হয়ে অন্ধকার দেয়ালে বন্দি হয়ে থাকত গোটা বাংলা। যার জন্ম না হলে ”রাষ্ট্র ভাষা বাংলা চাই”, “বাঙালিদের অধিকার প্রতিষ্ঠা চাই” ও “স্বাধীন বাংলাদেশ চাই” নামক ফুলগুলো না ফুটতেই অকালে ঝরে যেত।

একজন বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা, স্বাধীনতার কবিতা, স্বাধীনতার কাহিনী, স্বাধীনতার ছন্দ। তিনি বাংলার মানুষকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখিয়েছেন এবং সেই স্বপ্নকে বাস্তবেও রূপ দিয়েছেন। তিনিই শিখিয়েছেন কিভাবে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে হয়, কিভাবে সকল অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হয়। তাইতো মৃত্যুর পরেও আজও তিনি অমর।

১৯৭১ সালের ২৬ শে মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার ডাক দেন। তাঁর এই ডাকে সারা দেন দেশের সকল শ্রেণির মানুষ। অবশেষে, দীর্ঘ নয় মাসের এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ, ত্রিশ লক্ষ শহীদ ও দুই লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত হয় আমাদের স্বাধীনতা।

বাংলার মানুষ আজও শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে তাঁকে এবং যতদিন বিশ্বের মানচিত্রে এই বাংলাদেশ থাকবে ততদিন তিনি বেঁচে থাকবেন এই বাংলার মানুষের মনের মনিকোঠায়।

আজ এই মহানায়কের ১০১ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সারা দেশজুড়ে আয়োজন করা হয়েছে মিলাদ ও দোয়া-মাহফিল সহ বিভিন্ন রকমের অনুষ্ঠান এবং আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান সহ সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ গণকে।

১৯৭৫ সালের ১৫ ই আগস্ট ঘাতকদের নির্মম গুলিতে নিহত হন স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বাঙালি জাতি হারিয়েছে তাদের স্বাধীনতার ও মুক্তির মহানায়ককে। তাঁর এই শূণ্যতা আজও ভোগাচ্ছে বাংলার মানুষকে। তবে তাঁর শূণ্যতার অনেকটাই পূরণ করেছে তাঁরই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


Related posts

অপরাধী যেই হোক আইনের আওতায় আনা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

deshbangla71news.com

নারীর ক্ষমতায়নসহ অনেক ক্ষেত্রেই বাংলাদেশ এগিয়ে আছে: ভারতীয় হাই কমিশনার

deshbangla71news.com

বাংলাদেশ অবকাঠামো উন্নয়ন তহবিলের উদ্ভোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক