deshbangla71news.com
  • Home
  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সন্দ্বীপ ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিদ্দিকুর রহমানের মনোনয়ন প্রত্যাহার
নিজস্ব প্রতিবেদক

সন্দ্বীপ ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিদ্দিকুর রহমানের মনোনয়ন প্রত্যাহার


 

সন্দ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মুছাপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলিগ মনোনীত প্রার্থী ছিলেন আবুল খায়ের নাদিম। এদিকে আওয়ামীলিগ থেকে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ছিদ্দিকুর রহমান।মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ার পর তিনি দীর্ঘ পরিক্ষিত আওয়ামী নেতা হয়েও মনোনয়ন বঞ্চিত হয়েছেন বলে জনগনের পক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন। এরপর সব ইউনিয়নের চাইতে মুছাপুরের এই দুই শক্ত প্রতিদ্বন্দীর বিষয়ে চলছিলো রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যাপক গুন্জন। অন্য দিকে আবুল খায়ের নাদিমের মনোনয়ন প্রাথমিক বাছাই পর্বে বাতিল হয়েছিলো ঠুনকো কারনে। ব্যাংক স্টেটমেন্ট জনিত সমস্যার কারনে মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে আপীল করে বৈধতা পেলে আজ তিনি বিশাল হোন্ডা বহর যোগে সন্দ্বীপে শুভাগমনের পর প্রথমে শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন করেন। তারপর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাঈন উদ্দিন মিশনের অফিস কক্ষে এক বৈঠকে উর্ধ্বতন মহলের অনুরোধে চেয়ারম্যান পদ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেন বিদ্রোহী প্রার্থী ছিদ্দিকুর রহমান। তারপর তিনি উপজেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়ন প্রত্যাহারের পর উপজেলা মাঠে দুই প্রার্থী একে অপরকে ফুলের মালা পরিয়ে আলিঙ্গনে জড়িয়ে পড়লেন।

তাৎক্ষনিক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাঈন উদ্দিন মিশন সে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষনা দেন উপজেলা মাঠে।

এ সময় যুবলীগ সভাপতি ছিদ্দিকুর রহমান কান্না জড়িত কন্ঠে বক্তব্য দিয়ে নাদিমের পক্ষে সমর্থন জানিয়ে তার বক্তব্যে বলেন আমি আওয়ামীলিগের দুঃসময়ের কর্মী, জেল জুলুম অত্যাচারের শিকার হয়েছি তাই দল থেকে মনোনয়ন চেয়েছিলাম। না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিলেও দলের প্রতি সমর্থন ও সন্মান জানিয়ে আমি আমার মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছি। এবং নৌকার পক্ষে কাজ করবো।যদি আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতাম তাহলে আমাকে আমার আমার প্রাণপ্রিয় দল আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হতো।

এরপর আবুল খায়ের নাদিম বলেন আমরা দুইজন দলের নিবেদিত কর্মী, ছিদ্দিক ভাই দলের সিদ্ধান্তকে সন্মান জানিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে দলের জন্য ব্যাপক ত্যাগ স্বীকার করলেন। এজন্য ওনাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। এ সময় বিশিষ্ট্য আওয়ামীলিগ নেতা রাজিবুল আহসান সুমন, আলহাজ্ব ফোরকান উদ্দিন, দ্বীপবন্ধু পুত্র জিল্লুর রহমান সহ সকলে মিলে জয় বাংলা শ্লোগান দিয়ে বাঁধভাঙ্গা আনন্দ নিয়ে মুছাপুরের উদ্দেশ্যে বেড়িয়ে পড়েন।


Related posts

সরকারকে আর সময় দিতে চান না খসরু

deshbangla71news.com

বিশ্বের প্রথম আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরা স্মার্টফোন

Kazi MD Sazzad Hasan

‘আ’লীগ সাধারণ সম্পাদকের কাজই বিএনপির বিরুদ্ধে কথা বলা’ : ফখরুল

deshbangla71news.com