deshbangla71news.com

আমরা

উপদেষ্টা

এম রেজাউল করিম চৌধুরী

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে রেজাউল করিম চৌধুরী একজন ত্যাগী রাজনীতিবিদ এবং বর্তমানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ছোটবেলাতেই তিনি জড়িত হন ছাত্র রাজনীতিতে। দলের ক্রান্তি লগ্নে, দলের প্রয়োজনে সবসময় ছিলেন দলের পাশে। একটা শক্ত দেওয়াল হয়ে আছেন। রেজাউল করিম চৌধুরী ১৯৫৩ সালের ৩১শে মে চট্টগ্রাম জেলার চান্দগাঁও থানার পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ডের বহরদার জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। চট্টগ্রাম সরকারি মুসলিম হাই উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি‌ এবং চট্টগ্রাম কলেজ থেকে তিনি  এইচ.এস.সি. পাশ করেন। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিষয়ে পড়াশোনার জন্য ভর্তি হলেও রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের কারণে তা সম্পন্ন করতে পারেননি। ২০১৪ সাল থেকে তিনি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন।  সর্বশেষ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি হয়ে উঠেছেন গণমানুষের নেতা। বিপুল ভোটের ব্যবধানে তিনি নির্বাচিত হয়েছেন, গত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে। চট্টগ্রামের মানুষ আশা করছে চট্টগ্রামের মানুষের সমস্যা গুলো অনেকটাই তিনি দূর করতে পারবেন। ইতোমধ্যে তিনি কাজ ও শুরু করে দিয়েছেন। এছাড়াও তিনি একজন সমাদৃত লেখক।

শেখ ইফতেখার সাইমুম চৌধুরী

শেখ ইফতেখার সাইমুম চৌধুরী হলেন একজন আইনজীবী, পরিছন্ন রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক। তিনি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি সাবেক ছাত্রনেতা। সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক , চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি। সাবেক কো- অর্ডিনেটর,  ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি,চট্টগ্রাম জেলা। সদস্য সচিব, মুক্তিযুদ্ধের প্রামাণ্য চলচ্চিত্র। সাবেক রিজিওনাল চেয়ারপার্সন, হেড কোয়াটার, চট্টগ্রাম লায়ন্স ক্লাব। আজীবন সদস্য,  রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি।

মো: আবদুস সবুর লিটন

মো: আবদুস সবুর লিটন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ১ নম্বর প্যানেল মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি ২৫ নং রামপুর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক। একজন সফল সমাজ সেবক হিসাবে ব্যপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন তিনি। মেধা, মনন, কর্ম প্রয়াস, শ্রম ও অধ্যাবসায়ের মাধ্যমে ব্যবস্থাপনাগত দক্ষতা অর্জনের মধ্য দিয়ে তিনি নিজেকে গড়েছেন এক উজ্জ্বল অধ্যায়ে। তিনি জীবনের সুদীর্ঘ সময়ে সংগঠক, সমাজকর্মী এবং সর্বোপরি একজন মেহনতী মানুষের প্রকৃত জনদরদী হিসেবে অতি পরিচিত মানুষ মোঃ আবদুস সবুর লিটন।

ডাঃ বিদ্যুৎ বড়ুয়া

ডাঃ বিদ্যুৎ বড়ুয়া হলেন চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতালের প্রধান উদ্যোক্তা ও নির্বাহী। এছাড়াও তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক, ঢামেকসু ভিপি ও সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ এর সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য হয়েছেন। তাছাড়াও তিনি অক্সফাম বাংলাদেশের কনসালট্যান্ট হিসেবে কর্মরত আছেন।

দেবাশীষ পাল দেবু

দেবাশীষ পাল দেবু চট্টগ্রাম মহানগরে যুবলীগ নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য, স্টিয়ারিং কমিটি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, মহানগর শাখা, চট্টগ্রাম। সাবেক জি.এস. ছাত্রসংসদ, সরকারি সিটি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, চট্টগ্রাম। সাবেক সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, সরকারি সিটি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ। সাবেক সভাপতি,  বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বন্দর উচ্চ বিদ্যালয়, চট্টগ্রাম।

অধ্যাপক ড. মাসুম চৌধুরী

অধ্যাপক ড. মাসুম চৌধুরী হলেন বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় একজন কলামিস্ট। এছাড়াও তিনি প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক,  সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন। সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য,  বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ ও সাবেক সভাপতি, সরকারি সিটি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ।

সম্পাদক

মুহাম্মদ আবু আবিদ

মুহাম্মদ আবু আবিদ বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় একজন তরুণ সাংবাদিক। ইতিমধ্যেই তার উপস্থাপনা ও পরিচালনায় দূর্বার তারুণ্য (সামাজিক সংগঠন)  থেকে প্রচারিত লাইভ শো ‘যোদ্ধা’ পুরো বাংলাদেশে ব্যাপক সমাদৃত হচ্ছে। এ ছাড়াও তিনি একাধারে সমাজিক সংগঠক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, অভিনেতা, আবৃত্তিকার,  বির্তাকিক ও সুবক্তা।